সিলেট নগরীতে জলাবদ্ধতা: দুর্ভোগে ব্যবসায়ীসহ জনসাধারণ…

সিলেট প্রতিনিধিঃ টানা বর্ষণে সিলেট নগরীর ব্যস্ততম সড়কগুলোতে সৃষ্টি হয়েছে জলাবদ্ধতা। বুধবার ভোর থেকে কখনও অঝোর ধারায় আবার কখনও থেমে থেমে বৃষ্টিপাত হচ্ছে সিলেটে। ফলে দুপুরে নগরীর বিভিন্ন এলাকায় পানি জমে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দারা। এছাড়া নগরীর জিন্দাবাজার এলাকায় জলাবদ্ধতার কারণে উপচে পড়া পানি ঢুকেছে বিপণিবিতানগুলোতেও।

তাছাড়া নগরীর বিভিন্ন এলাকার বাসা-বাড়ি ও সড়কে জলাবদ্ধতার কারণে চরম দুর্ভোগে পড়েন জনসাধারণ।

জলাবদ্ধতার কারণে নগরীর বন্দরবাজার, জিন্দাবাজার, বারুতখানা, হাওয়াপাড়া, নাইওরপুল, মির্জাজাঙ্গাল, মনিপুরী রাজবাড়ি, দরগাহ গেইটসহ অধিকাংশ এলাকার প্রধান সড়কে পানিতে তলিয়ে যায়। এছাড়া পূর্ব জিন্দাবাজার সড়কের বারুতখানা এলাকার বেশ কয়েকটি দোকান এবং জিন্দাবাজারের শুকরিয়া মার্কেট, আহমদ ম্যানশন, জালালাবাদ হাউজ, ইদ্রিছ মার্কেট ও রাজা ম্যানশনের ভেতরেও পানি ঢুকে পড়ে।

এছাড়া নগরীর সুবিদবাজার, বনকলাপাড়া, হাউজিং এস্টেট, জালালাবাদ, লোহারপাড়া, বাগবাড়ি, চারাদিঘীরপাড়, রায়হোসেন, কলবাখানি, কুয়ারপাড়, কাজলশাহ, পাঠানটুলা, খোজারখলা, ভার্থখলা, মেনিখলা, বারখলা, পাঠানপাড়াসহ নগরীর প্রায় ৫০টি এলাকায় পানি জমে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। এ কারণে মানুষের দুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করে।

এসব এলাকার কোথাও কোথাও সড়কে হাঁটু থেকে কোমর সমান পানি। বাসা-বাড়িতে পানি উঠার পাশাপাশি রাস্তাঘাট তলিয়ে যাওয়ায় দুর্ভোগে পড়েছে স্কুলগামী শিক্ষার্থীসহ সাধারণ মানুষ। কোথাও হাঁটু জল, আবার কোথাও কোমর পানি ভেঙে তাদের চলাচল করতে হচ্ছে। এদিকে, জলাবদ্ধ বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করেছেন সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। এসময় সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে তিনি বলেন, মেয়র হিসাবে দায়িত্ব নেয়ার পর তিনি নগরীর ছড়া-নালা উদ্ধারে ব্যাপক কার্যক্রম হাতে নিয়েছিলেন এবং নগরবাসীও এর সুফল পেয়েছিল। কিন্তু, তিনি কারাবন্দী হয়ে যাওয়ার পর এ কার্যক্রমে কিছুটা ভাটা পড়ে। সম্প্রতি তিনি মেয়র হিসাবে ফের দায়িত্ব নিয়েছেন। দায়িত্ব নেয়ার পরই তিনি জলাবদ্ধতার সমস্যা চিহ্নিত করেছেন এবং শিগগিরই ইলেকট্রিক সাপ্লাই, আম্বরখানা, বড় বাজার, দরগাহ গেইট, আলীয়া মাদ্রাসা মাঠ, দাঁড়িয়াপাড়া এবং হাওয়াপাড়া, বারুতখানা এলাকায় ছড়া উদ্ধার কার্যক্রম শুরু করবেন।

 

শেয়ার করুন