চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডে ভয়াবহভাবে কমেছে পাসের হার ও জিপিএ-৫

বাংলা নিউজ ইউকে ডটকমঃ চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডে চলতি বছরে এইচএসসিতে পাসের হার ও জিপিএ-৫ দুটোই কমেছে। এবারের পাসের হার ৬১ দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ। পাস করেছেন ৫০ হাজার ৩৪৬ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছেন ১ হাজার ৩৯১ শিক্ষার্থী। এবার বিজ্ঞানে পাসের হার বেড়েছে। কিন্তু গতবারের চেয়ে ব্যবসায় শিক্ষা ও মানবিক শাখায় এবার পাসের হার কম।

রোববার দুপুরে চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ড মিলনায়তনে ফলাফল ঘোষণা করেন পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাহবুব হাসান। ফলাফল বিশ্লেষণ করে জানান, এবার বিজ্ঞানে বিভাগে পাসের হার ৭৭ দশমিক ৩৪ শতাংশ। ব্যবসায় শিক্ষা শাখায় পাসের হার ৬৫ দশমিক ৩৬ শতাংশ এবং মানবিক বিভাগে পাসের হার ৪৭ দশমিক ৪৯ শতাংশ। সবমিলিয়ে এবার পাসের হার ৬১ দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ।

গতবছর থেকে ৮৬২ জন কমে এবছর এবার জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ হাজার ৩৯১ শিক্ষার্থী। এবছর বিজ্ঞান বিভাগ থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ হাজার ৭৯ জন, মানবিকে ৩৪ জন এবং ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে পেয়েছে ২৭৮ জন পরীক্ষার্থী। গতবার পাসের হার ছিল ৬৪ দশমিক ৬০ শতাংশ; জিপিএ-৫ পেয়েছিলেন ২ হাজার ২৫৩ জন।

এবছর ব্যবসায় শিক্ষা ও মানবিক বিভাগে পাসের হার কমলেও বিজ্ঞান বিভাগে পাসের হার কিছুটা বেড়েছে। বিজ্ঞানে বিভাগে গতবছরের চেয়ে দশমিক ৬৮ শতাংশ বেড়ে এবছর পাসের হার ৭৭ দশমিক ৩৪ শতাংশ।
ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে গতবছরের চেয়ে ৪ দশমিক ৪৯ শতাংশ কমে এবছর পাসের হার ৬৫ দশমিক ৩৬ শতাংশ এবং মানবিক বিভাগে গতবছরের চেয়ে ৪ দশমিক ১৩ শতাংশ কমে এবছর পাসের হার ৪৭ দশমিক ৪৯ শতাংশ।

বিজ্ঞান বিভাগের ১৭ হাজার ১৬৬ জনের মধ্যে পাস করেছে ১৩ হাজার ২৭৭ জন। ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে ৩৪ হাজার ৫২ জনের মধ্যে পাস করেছে ২২ হাজার ২৫৫ জন এবং মানবিকে বিভাগে ৩১ হাজার ১৯৬ জনের মধ্যে পাস করেছে ১৪ হাজার ৮১৫ জন পরীক্ষার্থী।

চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এ বছর ২৩৮টি কলেজের ৮৩ হাজার ২২৭ জন পরীক্ষার্থী অংশ নেয়। এর মধ্যে ছাত্র পাস করেছেন ২৪ হাজার ৭১৬ জন এবং ছাত্রী পাস করেছেন ২৫ হাজার ৬৩১ জন। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার ও তিন পাবর্ত্য জেলার ৯৮ কেন্দ্রে এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

নগরসহ চট্টগ্রামের ৬১টি কেন্দ্রে ৬১ হাজার ৪৪২ জন, কক্সবাজার জেলার ১৪টি কেন্দ্রে ৮ হাজার ৯৯৯ জন, রাঙামাটি জেলার ১০টি কেন্দ্রে ৫ হাজার ১১৫ জন, খাগড়াছড়ি জেলার ৯টি কেন্দ্রে ৫ হাজার ৮৬৬ জন এবং বান্দরবান জেলার ৪টি কেন্দ্রে ১ হাজার ৭৭১ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে।

এবার পাসের হার ও জিপিএ-৫ দুটোই কমার বিষয়ে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাহবুব হাসান বলেন, খাতা মূল্যয়ন পদ্ধতিতে পরিবর্তন আসায় ফলাফলে তা প্রভাব পড়েছে। পাশাপাশি আইসিটি, তথ্য প্রযুক্তি ও ইংরেজি বিষয়ে গতবছরের তুলনায় ভালো ফল আসেনি।

এ বছর বিজ্ঞানে পাসের পর বাড়লেও মানবিক বিভাগের পরীক্ষার্থীদের পাসের হার কম হওয়ায় তা মূল পাসের হারে গিয়ে প্রভাব পড়েছে।

শেয়ার করুন