আজ আবদুল্লাহ আবু সায়ীদের ৭৮তম শুভ জন্মদিন

বাংলা নিউজ ইউকে ডটকমঃ বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদের ৭৮তম জন্মদিন আজ। ১৯৪০ সালে এই দিনে কলকাতার পার্ক সার্কাসে জন্মগ্রহণ করেন তিনি।

অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদের পৈতৃক নিবাস বাগেরহাটের কচুয়া থানাধীন কামারগাতি গ্রামে। তার বাবা আযীমউদ্দিন আহমদ ছিলেন একজন স্বনামধন্য শিক্ষক। মায়ের নাম করিমুন্নেসা। বাবার শিক্ষক হিসেবে অসামান্য সাফল্য ও জনপ্রিয়তা শৈশবেই তাকে এ পেশার প্রতি আকৃষ্ট করে।

তাই তিনি ১৯৬১ সালে শিক্ষকতা দিয়েই কর্মজীবন শুরু করেন। মুন্সীগঞ্জ হরগঙ্গা কলেজে খণ্ডকালীন প্রভাষক হিসেবে যোগ দেয়ার পর পরবর্তীতে সিলেট মহিলা কলেজ, রাজশাহী কলেজ ও ঢাকায় ইন্টারমিডিয়েট টেকনিক্যাল কলেজে (বর্তমানে ঢাকা বিজ্ঞান কলেজ) শিক্ষকতা করেন।

এরপর তিনি বাংলাদেশের অন্যতম শ্রেষ্ঠ কলেজ ঢাকা কলেজের তৎকালীন অধ্যক্ষ জালালউদ্দিন আহমেদের আমন্ত্রণে সেখানে যোগদান করেন। ঢাকা কলেজেই তিনি তার শিক্ষকতা জীবনের স্বর্ণযুগ অতিবাহিত করেন।

ষাটের দশকে বাংলাদেশে যাদের নেতৃত্বে নতুনধারার সাহিত্য আন্দোলন শুরু হয় অধ্যাপক অাবদুল্লাহ আবু সায়ীদ তাদের মধ্যে অন্যতম। সাহিত্য পত্রিকা কণ্ঠস্বর সম্পাদনার মাধ্যমে সেদিনের নবীন সাহিত্যযাত্রাকে সংহত ও বেগবান করে রেখেছিলেন এক দশক ধরে।

‘আলোকিত মানুষ চাই’ আন্দোলনের পুরোধা এই শিক্ষাবিদ সত্তর দশকের শেষের দিকে প্রতিষ্ঠা করেন বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্র। এই কেন্দ্রের বই পড়া কর্মসূচির মাধ্যমে তিনি দেশের হাজার হাজার স্কুলপড়ুয়া ছাত্র-ছাত্রীকে বই পড়ার অভ্যাস গড়ে তুলতে সাহায্য করছেন।

বাংলাদেশে টেলিভিশনের সূচনালগ্ন থেকে রুচিবান ও বিনোদন-সক্ষম ব্যক্তিত্ব হিসেবে অবদান রাখেন আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ। টেলিভিশনের বিনোদন ও শিক্ষামূলক অনুষ্ঠানের উপস্থাপনায় তিনি পথিকৃৎ ও অন্যতম সফল ব্যক্তিত্ব। কবিতা, প্রবন্ধ, ছোটগল্প, নাটক, অনুবাদ, জীবনীমূলক বইসহ তার প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা প্রায় ২৭টি।

ডেঙ্গু প্রতিরোধ আন্দোলন, পরিবেশ দূষণবিরোধী আন্দোলনসহ নানা সামাজিক আন্দোলনেও তাকে সোচ্চার হতে দেখা গেছে।

অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ একুশে পদক, র‌্যামন ম্যাগসাইসাইসহ নানা পুরস্কার ও সম্মাননায় ভূষিত হয়েছেন।

শেয়ার করুন