একমাত্র প্রধানমন্ত্রীই পারেন নায়ক সালমান শাহ’র হত্যার বিচার আদায় করিয়ে দিতে : নীলা চৌধুরী

২১ বছর আগে অস্বাভাবিক মৃত্যুর শিকার চিত্রনায়ক সালমান শাহকে হত্যা করা হয়েছে দাবী করে এর বিচার দাবি করেছেন মা রাজনীতিক নীলা চৌধুরী।

সম্প্রতি সালমানকে হত্যা করা হয়েছে, সোস্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল এই মামলার অভিযুক্ত আট নাম্বার আসামী যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী রুবি সুলতানার ভিডিও স্বীকারাক্তির পর মঙ্গলবার বিকেলে পূর্ব লন্ডনে একটি রেষ্টুরেন্টে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই আকুতি জানান সালমানশাহর মা।সংবাদ সম্মেলনে নীলা চৌধুরীর দুই ভাই আত্তরঙ্গ জেব বুলবুল ও জগলুল হায়াতও উপস্থিত ছিলেন।

রুবি’র ভিডিও স্বীকারাক্তি সম্পর্কে মন্তব্য করে নীলা চৌধুরী বলেন, ধর্মের ঢুল বাতাসে নড়ে। আজ ২১ বছর ধরে প্রতিনিয়ত আমি বলে আসছি আত্মহত্যা নয়, আমার ছেলেকে হত্যা করা হয়েছে। কিন্তু বারবার আমাকে থামিয়ে দেয়ার অপচেষ্টা করা হয়েছে। শুধু তাই নয়, ছেলে হত্যার বিচার চেয়েছি বলে আমাকেও হুমকি ধামকি এমন কি মেরে ফেলার চেষ্টা হয়।

সালমান শাহ’র মৃত্যু মামলাকে হত্যা মামলা হিসেবে আমলে নিয়ে অবিলম্বে বিচার শুরুর আকুতি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র উদ্দেশ্যে নীলা চৌধুরী বলেন, আপনি আপনার পুরো পরিবার হারিয়েছেন, আমি হারিয়েছি আমার ছেলে। পরিজন হারানোর কি কষ্ট তা আমরা দুজনই অনুধাবন করতে পারি। একমাত্র আপনিই পারেন আমার ছেলে হত্যার বিচার আদায় করিয়ে দিতে।

আমেরিকা প্রবাসী রুবিকে ইন্টারপোলের মাধ্যমে দেশে ফিরিয়ে এনে আদালতের মাধ্যমে স্বাক্ষ্য গ্রহনের অনুরোধ জানিয়ে নীলা চৌধুরী বলেন, ‘হত্যাকারীদের প্রভাব খর্ব করে একমাত্র প্রধানমন্ত্রীই পারেন এটি সম্ভব করতে’। সাম্প্রতিক সময়ে বঙ্গবন্ধু হত্যাসহ বিভিন্ন হত্যাকান্ডের বিচার নিশ্চিতের মাধ্যমে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় শেখ হাসিনা সরকারের বিভিন্ন সাফল্যের প্রশংসা করে সালমান শাহ জননী নীলা বলেন, আমার ছেলে হত্যার বিচারেও এমন সাফল্য আসবে, এটি আমি বিশ্বাস করি।

হত্যাকারীদের প্রভাবে সালমান শাহ হত্যাকাণ্ডের সব আলামত নষ্ট করা হয়েছে এমন অভিযোগ করে নীলা চৌধুরী বলেন, আমি বারবার আবেদন জানিয়েছি আমার ছেলের অস্বাভাবিক মৃত্যুকে হত্যকাণ্ড হিসেবে আমলে নিয়ে মামলা পরিচালিত হোক। আমেরিকা প্রবাসী রুবির সোস্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল ভিডিও স্বীকারোক্তির পর আমার দাবিই সঠিক প্রমানিত হলো, হত্যামামলা হিসেবে আমলে নিতে এখনতো আর অসুবিধা থাকার কথা নয়। পুত্রের হত্যামামলা নিষ্পত্তি এবং বিচার না হওয়া পর্যন্ত আল্লাহ যেন তাকে মরন না দেন সংবাদ সম্মেলনে এমন প্রার্থনা করে সালমান জননী বলেন, আমি না পারলে আমার পরবর্তী প্রজন্মও এই বিচার আদায়ে সবসময় স্বক্রিয় থাকবে।

উল্লেখ্য নব্বই দশকের সাড়া জাগানো চিত্রনায়ক সালমান শাহের প্রশ্নবিদ্ধ মৃত্যুরহস্য নিয়ে সন্দেহভাজন এক হত্যাকারীর স্ত্রী সামাজিক মাধ্যমে প্রচারিত এক ভিডিও বার্তায় সামলাম শাহ হত্যা মামলার এক আসামীর স্ত্রীর পরিচয় দিয়ে রুবি নামে এক মহিলা দাবী করেছেন, আত্মহত্যা নয়, সালমান শাহকে হত্যা করা হয়েছে।

১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর সিলেটের কৃতি সন্তান শাহরিয়ার চৌধুরী ঈমন ওরফে সালমান শাহের মরদেহ তাঁর ঢাকার বাসা থেকে উদ্ধার করা হয়। তার স্ত্রী সামিরা এবং স্ত্রীর পরিবারের পক্ষ থেকে সামলাম শাহ আত্মহত্যা করেছেন বলে দাবী করা হলেও সালমান শাহের মা নীলা চৌধুরী এবং তাদের পরিবারের পক্ষ থেকে সালমান শাহকে হত্যা করা হয়েছে বলে পাল্টা দাবী করেন। ছেলে হত্যার বিচারের দাবীতে এখনো আদালতে লড়াই করে যাচ্ছেন সালমান শাহের পরিবার।

শেয়ার করুন