স্ত্রীকে নির্যাতনের অভিযোগে ক্রিকেটার মেহেদী মারুফের বিরুদ্ধে মামলা

বাংলা নিউজ ইউকে ডটকমঃ নিজের স্ত্রীকে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে বিপিএল মাতানো হার্ডহিটার ব্যাটসম্যান মেহেদী মারুফের বিরুদ্ধে। মারুফের স্ত্রী তামান্না বিনতে আজাদের দাবি তাঁকে নির্যাতন করে গর্ভের সন্তানকে হত্যা করেছেন মেহেদী মারুফ। আর এজন্যই চট্টগ্রাম আদালতে মামলা দায়ের করেছেন।

আদালতের বিজ্ঞ বিচারক মামলা আমলে নিয়ে তদন্তের জন্য পুলিশের বিশেষ সংস্থা পুলিশ ইনভেস্টিগেশন ব্যুরো অব বাংলাদেশকে তদন্তের জন্য নির্দেশ দিয়েছেন। গত বুধবার মামলাটি করেছেন মারুফের স্ত্রী সরকারী কর্মকর্তা তামান্না।

মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী মামলা ও আদেশের বিষয় নিশ্চিত করে বলেন, ২০০৯ সালের ২৯ নভেম্বর ক্রিকেটার মারুফের সঙ্গে তামান্নার বিয়ে হয়। মারুফের সঙ্গে যৌথ পরিবারে সংসার করতে গিয়ে পারিবারিক বিরোধ সৃষ্টি হলে মারুফ ও তামান্না আলাদা বাসায় সংসার শুরু করেন। মামলায় অভিযোগ করা হয়, মারুফ অন্য নারীতে আসক্ত হয়ে পড়লে এ নিয়ে তামান্নার সঙ্গে বিরোধ তীব্র হয়। এর মধ্যে তামান্না অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। চলতি বছরের ১৯ ফেব্রুয়ারি ঝগড়ার এক পর্যায়ে মারুফ তামান্নার পেটে লাথি মারলে তাকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকরা তামান্নার গর্ভের সন্তান মারা গেছে বলে জানালে তার গর্ভপাত ঘটানো হয়।

তামান্নার আইনজীবির দাবি, এর আগে মামলা করতে চাইলে মারুফের পরিবারের অনুরোধে মামলা করেননি তিনি। কিন্তুু সম্প্রতি মারুফ স্ত্রীর সঙ্গে সব ধরণের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন। ফলে বাধ্য হয়েই তামান্না মামলা করেছেন। মামলায় তিনি উল্লেখ করেছেন, আসামী মারুফ মিরপুরে বিসিবির একাডেমি ভবনে বসবাস করেন।

শেয়ার করুন