সারাদেশে এবার ৩০ হাজার মণ্ডপে পূজা অনুষ্ঠিত হবে

বাংলা নিউজ ইউকে ডটকমঃ সারাদেশে উৎসবের আঙ্গিকে শারদীয় দুর্গোৎসব উদযাপনের মাধ্যমে সাম্প্রদায়িক শক্তিকে প্রতিরোধ করার আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ। সারাদেশে এবার প্রায় ৩০ হাজার মণ্ডপে পূজা অনুষ্ঠিত হবে।

ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দিরে অনুষ্ঠিত পরিষদের বর্ধিত সভায় এ আহবান জানানো হয়। সভায় এবার দেশে পূজোর সংখ্যা আরও বৃদ্ধি পাওয়ায় গভীর সন্তোষ প্রকাশ করে বলা হয়, ‘ধর্ম যার-যার উৎসব সবার’ এই চেতনার বিকাশের মধ্য দিয়েই বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে, মুক্তিযুদ্ধের মূল ধারা আরও শক্তিশালী হবে।

সংগঠনের সভাপতি জয়ন্ত সেন দীপুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত আইজিপি ও ঢাকা মেট্টপলিটন পুলিশের কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া । অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, অধ্যাপক ড. নিমচন্দ্র ভৌমিক, স্বপন কুমার সাহা, অ্যাড. সুব্রত চৌধুরী, যুগ্ম কমিশনার কৃষ্ণপদ রায়, মিলন কান্তি দত্ত, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. তাপস কুমার পাল প্রমুখ।

সভায় বিভিন্ন জেলা থেকে আগত নেতৃবৃন্দ এলাকার পরিস্থিতি, পূজোর প্রস্তুতি এবং নানা সমস্যার কথা তুলে ধরেন। এছাড়াও শারদীয় দূর্গোপূজোয় তিন দিনের সরকারি ছুটি, প্রতিটি পূজা মণ্ডপে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা পূজোর সময় গুরুত্বপূর্ণ সরকারী ভবনগুলোতে জাতীয় উৎসবের আঙ্গীকে আলোকসজ্জা ও সড়ক সজ্জার দাবী জানানো হয়।

পূজা উদযাপন পরিষদের সভায় প্রত্যেক জেলা কমিটি ও মহানগর কমিটিকে শারদীয় দুর্গোৎসব নির্বিঘ্নে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে বিভিন্ন নির্দেশনাও প্রদান করা হয়।

নির্দেশনায় প্রতিটি পূজা মণ্ডপে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা বেষ্টনী নির্মাণ, পূজা মণ্ডপে নারী ও পুরুষের আগমন এবং নির্গমন পথ পৃথক, পরিচয় কার্ডধারী নিজস্ব স্বেচ্ছাসেবক দিয়ে ২৪ ঘণ্টা তদারকি/পাহারার ব্যবস্থা করার কথা বলা হয়।

এছাড়াও কোনরূপ আতসবাজি ও পটকা ফোটানো থেকে বিরতি থাকা এবং ৩০ সেপ্টেম্বর রাত ১০ টার মধ্যে প্রতিমা বিসর্জন সম্পন্ন এবং ভক্তিমূলক সংগীত ব্যতীত অন্য সংগীত বাজানো থেকে বিরত থাকার নির্দেশনাও দেয়া হয়েছে।

শেয়ার করুন