সুনামগঞ্জে তাহিরপুরে আটক ১১ জন রোহিঙ্গাকে টেকনাফে ফেরত

বাংলা নিউজ ইউকে ডটকমঃ সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে আটক শিশুসহ ১১ জন রোহিঙ্গাকে শুক্রবার সকালে কক্সবাজারের টেকনাফের শরণার্থী শিবিরে পাঠানো হয়েছে। তারা সবাই একই পরিবারের সদস্য বলে জানায় পুলিশ।

পরিচয় গোপন করে বাংলাদেশি ভুয়া জন্ম ও নাগরিকত্ব সনদ সংগ্রহ করেছিলেন এই ১১ রোহিঙ্গা।

তারা হলেন- মিয়ানমারের আকিদা জেলার মংদু থানার কুয়ান শিবং গ্রামের আব্দুছ ছবুর, স্ত্রী আমিনা বেগম, ছেলে আব্দুল হালিম, মেয়ে হালিমাতুস সাহিয়া, তালিহা আক্তার, উম্মে বেগম, আব্দুল হাসিমের স্ত্রী উম্মুল খাইরিন ও মেয়ে মোশারফা।

সম্প্রতি মিয়ারমারে নির্বিচারে মুসলিম গণহত্যা, ধর্ষণ, বাড়ি-ঘরে আগুন দেয়ার কারণে জীবন বাঁচাতে বাংলাদেশে পালিয়ে আসছে লাখ লাখ রোহিঙ্গা।

তাদের মধ্যে একেই পরিবারের শিশুসহ ১১ জন এসে গত তিন মাস ধরে উপজেলার উত্তর বড়দল ইউনিয়নের গুটিলা গ্রামের আত্মগোপন করে বসবাস করছিল। স্থায়ী বসবাসের জন্য সম্প্রতি নাগরিক সনদ সংগ্রহ করে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পুলিশ গোপন সংবাদে তাদের আটক করে পরে তাহিরপুর থানায় নিয়ে আসে।

তাহিরপুর থানার ওসি নন্দন কান্তি ধর এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, শুক্রবার পুলিশি নিরাপত্তায় আটক রোহিঙ্গাদের টেকনাফে শরণার্থী শিবিরে পাঠানো হয়েছে।

শেয়ার করুন