দুই দিনের প্রবল বর্ষণে দুর্ভোগ বাড়িয়েছে রোহিঙ্গাদের

বাংলা নিউজ ইউকে ডটকমঃ দুই দিনের প্রবল বর্ষণে দুর্ভোগ বাড়িয়েছে রোহিঙ্গাদের। বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে তাদের জন্য তাৎক্ষণিক তৈরি করা পলিথিনের ঘরগুলো পানিতে ভেসে গেছে।

সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, কক্সবাজাররে উখিয়ার পালংখালী ইউনিয়নের বালুখালী গোজঘোনা এলাকায় আশ্রয় নেওয়া এক হাজার রোহিঙ্গা পরিবার পানির নিচে দিন যাপন করছে। দুই দিন ধরে খাবার জুটেনি তাদের। ছোট ছোট ছেলে মেয়েদের কান্নায় ওখানকার পরিবেশ ভারী হয়ে উঠেছে।

এখনো পযর্ন্ত কোন ত্রাণ পায়নি। গত দুই দিন ধরে প্রবল বর্ষনে ও পাহাড়ী ঢলে তলিয়ে গেছে রোহিঙ্গা দের ঝুপটি ঘর।এসব ঝুপঁটি ঘরে রাত্রি যাপন করা কষ্ট সাধ্য বলে জানিয়েছেন মিয়ারমারের বালুখালী গ্রাম থেকে আসা মোহাম্মদ হাসান। এতে ভেসে গেছে পলিথিনে সাজানো ঝুপড়ি সংসার।

পানিতে ভিজে বসে থাকতে না পেরে  আশ্রয় গুছিয়ে নিয়ে আবারো পথের ধারে অবস্থান নিচ্ছে। মাথায় পুটলা ও অন্য সম্বল নিয়ে নিরাপদ আশ্রয়ের আশায় ছুটছে অনিশ্চিত গন্তব্যে।

পালংখালী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান (ভারপ্রাপ্ত) ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন-সম্পাদক মোজাফর আহাম্মদ বলেন, বালুখালী ক্যাম্পে কয়েক লাখ রোহিঙ্গা আশ্রয় নিয়েছে। পলিথিনের চালায় মাথা গোঁজার ঠাঁই করলেও ঝড়ো হাওয়ায় সব শেষ হয়ে গেছে।

কক্সবাজার আবহাওয়া অফিসের আবহাওয়াবিদ উজ্জল কান্তি পাল বলেন, সোমবার দুপুর থেকে মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে ৫৯ মিলিমিটার।

তিনি বলেন, ঝড়ো হাওয়াসহ এমন বৃষ্টিপাত থাকবে আরো দু’দিন।

শেয়ার করুন