হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে কাপড়ের চালান থেকে সাত কেজি স্বর্ণ উদ্ধার! বাজার মূল্য সাড়ে তিন কোটি টাকা

বাংলা নিউজ ইউকে ডটকমঃ হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে একটি কাপড়ের চালান থেকে সাত কেজি স্বর্ণ উদ্ধার করা হয়েছে। যার বর্তমান বাজার মূল্য সাড়ে তিন কোটি টাকা।

বিমানবন্দরের এপ্রোন এলাকার সিঙ্গাপুর হতে আগত ফ্লাইট নং এসকিউ৪৪৬ এর কার্গো হোল্ড থেকে শনিবার গভীর রাতে এসব স্বর্ণ উদ্ধার করা হয়েছে। তবে রোববার বিকেলে শুল্ক গোয়েন্দার মহা-পরিচালক (ডিজি) ড. মঈনুল খান নিশ্চিত করেছেন।

মঈনুল খান বলেন, চালানের সাথে থাকা কাগজ পরীক্ষায় দেখা যায়, সিংগাপুর থেকে জনৈক রবিন নামের এক ব্যক্তি ঢাকার  আরাফাত ফেব্রিক্স ইন্ডাস্ট্রিজ বরাবর উক্ত প্যাকেজটি প্রেরণ করেন।

স্বর্ণ উদ্ধারের ঘটনায় দি কাস্টমস অ্যাক্ট ১৯৬৯ অনুযায়ী মামলা দায়ের করা হয়েছে। অধিকতর তদন্তের মাধ্যমে জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডিজি জানান, কাপড়ের অভিনব পদ্ধতিতে আমদানিকৃত কাপড়ের চালানে লুকায়িত অবস্থায় ৭ কেজি স্বর্ণ উদ্ধার করা হয়েছে। যার বাজার মূল্য প্রায় সাড়ে তিন কোটি টাকা। এসব স্বর্ণ কাপড়ের চালানে লুকায়িত অবস্থায় আনা হয়েছিল। রাতেই তা পাচার হওয়ার চেষ্টা ছিল।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায়, সিঙ্গাপুর হতে আগত এসকিউ৪৪৬ ফ্লাইটের পিমসি নং ৫৮৭২৬ এসকিউ, এয়ারওয়ে বিল ৬১৮ এর মাধ্যমে স্বর্ণ চোরাচালান সংঘটিত হবে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে শাহজালাল বিমানবন্দরের এপ্রোন এলাকায় শুল্ক গোয়েন্দা দল সতর্কতামূলক অবস্থান গ্রহণ করে।

সিঙ্গাপুর হতে রাত ১০ টা ৪০ মিনিটে আগত ফ্লাইটটি বিমানবন্দরের ৪ নং বোর্ডিং ব্রিজে অবতরণ করলে শুল্ক গোয়েন্দা ফ্লাইটটি ঘিরে ফেলে। পরবর্তীতে বিমানের কার্গো হোল্ড থেকে সন্দেহজনক চালানের প্যালেটটি শনাক্ত করে নামানো হয়। গভীর রাতে প্যালেট হতে বিভিন্ন সংস্থার উপস্থিতিতে এয়ারওয়ে বিল নং ৬১৮ এসআইএন ৪৯১৯৮৬৭১ এর পণ্য চালানটি বের করা হয়। ওই পণ্য চালানটিতে ২৩ কেজি ওজনের সাদা রঙের প্লাস্টিক দিয়ে মোড়ানো সাদা, কালো এবং লাল রঙের ৪টি কাপড়ের রোল পাওয়া যায়। যার একটি রোলে স্ক্যানের মাধ্যমে স্বর্ণের অস্তিত্ব নিশ্চিত হওয়া যায়। এরপর চালানটি কাস্টমস গ্রিন চ্যানেলের ব্যাগেজ কাউন্টারের সামনে আনা হলে বিভিন্ন সংস্থার উপস্থিতিতে ২৩ কেজি ওজনের সাদা রঙয়ের প্লাস্টিক দিয়ে মোড়ানো ৪ টি কাপড়ের রোলের মধ্যে কালো রঙয়ের কাপড়ের রোলটি খুলে ৭টি স্বর্ণবার উদ্ধার করা হয়। যার প্রতিটির ওজন ১ কেজি।

শেয়ার করুন