‘রেফারি হবেন আওয়ামী লীগের সভানেত্রী আর আমাদেরকে নির্বাচন করতে হবে?’

বাংলা নিউজ ইউকে রিপোর্ট : সকল রকম বিধিবিধান ভঙ্গ করে তারেক রহমানের উপর নির্মম অত্যাচার করা হয়েছে বলে উল্লেখ করে বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান ও কৃষক দলের সাধারণ সম্পাদক শামসুজ্জামান দুদু আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, আগামী নির্বাচনের আগেই দেশে ফিরবেন তারেক রহমান। সেই ধরনের পরিস্থিতি এই দেশের মানুষ আন্দোলন সংগ্রামের মধ্য দিয়ে তৈরি করবে।

আজ মঙ্গলবার (২১ নভেম্বর) দুপুরে ঢাকা মহানগর (দক্ষিণ) কৃষক দল আয়োজিত ‘বিএনপি’র সিনিয়র ভাইস-চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ৫৩তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে তার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত ষড়যন্ত্রমূলক সকল মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে’ এক মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আমি স্পষ্ট ভাষায় আজকের দিনে এখানে বলে যাই। শেখ মুজিবের কন্যা শেখ হাসিনা জিয়াউর রহমান এবং খালেদা জিয়ার পুত্র তারেক রহমান। আসেন না প্রধানমন্ত্রী আপনি আপনার আসনে নির্বাচন করেন আর তারেক রহমান তার আসনে নির্বাচন করুক। কে কত ভোট পায়। রেফারি থাকবে অন্যজন। আগামী নির্বাচনে এটা আমরা দেখতে চাই।রেফারি হবেন আওয়ামী লীগের সভানেত্রী আর আমাদেরকে নির্বাচন করতে হবে? এমন নির্বাচন বাংলাদেশে আর যদি কেউ স্বপ্নে দেখে থাকেন সেটি হবে না।’

তিনি আরো বলেন, ‘আগামী নির্বাচন সময় মতই হবে। আগামী নির্বাচন উৎসবমুখর পরিবেশেই হবে। সেই নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণও করবে। কিন্তু শেখ হাসিনার প্রধানমন্ত্রীত্বে আবারও ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি মার্কা নির্বাচন হবে- এটা যদি আওয়ামী লীগ ভুলে যায় তাহলে ভাল হবে। তাদের জন্যও ভাল, দেশের জন্যও ভাল, গণতান্ত্রিক বিধি ব্যবস্থার জন্যও ভাল।’

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি নাসির হায়দারের সভাপতিত্বে এবং কৃষক দলের সহ-দফতর সম্পাদক সাদির সঞ্চালনায় মানববন্ধনে আরও বক্তব্য দেন-বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাড. সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল,নির্বাহী কমিটির সদস্য নাজিম উদ্দীন মাষ্টার,আবু নাসের মো. রহমত উল্লাহ, কৃষক দলের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক তকদির হোসেন মো. জসিম, কৃষক দলের কেন্দ্রীয় নেতা মাইনুল হোসেন, জিনাপের সভাপতি মিয়া. মো. আনোয়ার, দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন, শাহবাগ থানা কৃষক দলের সভাপতি এম জাহাঙ্গীর আলম,বংশাল থানার সভাপতি আব্দুর রাজী, কর্মজীবী দলের সাধারণ সম্পাদক আলতাব হোসেন প্রমুখ।

শেয়ার করুন