কুমিল্লাকে হারিয়ে ফাইনালের টিকিট পেল রংপুর

বাংলা নিউজ ইউকে রিপোর্ট : কুমিল্লাকে ৩৭ রানে হারিয়ে ফাইনালের টিকিট পেল রংপুর রাইডার্স। রংপুরের বেধে দেওয়া ১৯৩ রান তাড়া করতে নেমে ১৫৬ রানেই শেষ হয়ে যায় কুমিল্লার ইনিংস।

মঙ্গলবার ফাইনালে গতবারের চ্যাম্পিয়ন ঢাকা ডায়নামাইটসের মুখোমুখি হবে রংপুর। রান তাড়া করতে নেমে প্রথম ওভারে চার-ছক্কায় দারুণ শুরু করেছিলেন তামিম ও লিটন। আম্পায়ারের ভুলে জীবন পাওয়া তামিম ইকবাল ঝড়ের ইঙ্গিত দিয়েও পারেননি। ১৯ বলে ৩৬ রান করে আউট হয়েছেন মাশরাফি বিন মুর্তজার বলে।

ইমরুল কায়েস ফিরেছেন (০) রানে। শোয়েব মালিক খেলেছেন (১৪ বলে ১০)। এরই ধারাবাহিকতায় এক শ পেরোনোর আগে বিদায় নিয়েছেন লিটনও (৩৯ রান)।

ছয়ে নেমে জশ বাটলার যা একটু চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু তার ১৬ বলে ২৬ রান কেবল হারের ব্যবধানই কমিয়েছে। বিশেষ করে মারলন স্যামুয়েলসের ব্যাটিং ছিল এদিন প্রশ্নবিদ্ধ। দলের গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তে  ৩০ বলে ২৭ রান করেন ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান। শেষদিকের ব্যাটসম্যানদের কাছে তাই করার ছিল না কিছুই।

রংপুরের হয়ে এদিন সফল বোলার রুবেল হোসেন। ৪ ওভার বল করে ৩৪ রান খরচায় ৩ উইকেট নেন ডানহাতি এই পেসার। এদিন উদানা ও বোপারা নেন দুটি করে উইকেট। অন্যদিকে মাশরাফি, সোহাগ গাজী ও নাজমুল ইসলাম নেন একটি করে উইকেট।

এর আগে নির্ধারিত ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ১৯২ রান করে রংপুুর। গতকাল ৭ ওভারে ১ উইকেট হারিয়ে ৫৫ রান করার পর বৃষ্টি বাধায় আর খেলা সম্ভব হয়নি। বিপিএল কর্তৃপক্ষের তাৎক্ষণিক সিদ্ধান্তে ম্যাচ গড়ায় রিজার্ভ ডেতে।

গতকালের সেই স্কোর থেকেই শুরু হয় খেলা। রোববার বিধ্বংসী জুটির আভাস দেওয়া চার্লস-ম্যাককালাম সেই আভাস আজ বাস্তবে রুপ দেন একের পর এক বাউন্ডারির ফুলঝুড়িতে।

৮৯ বলে ১৫১ রানের জুটি গড়ে দলের সংগ্রহ দুইশর কাছে নিয়ে যান দুজনে। এ জুটি গড়ার পথে ৪৬ বলে ৯টি ছক্কা ও ১টি চারে ৭৮ রান করেন ম্যাককালাম। অন্যদিকে ৬২ বলে নিজের ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন চার্লস। শেষ পর্যন্ত ৬৩ বলে ১০৫ রানের ম্যারাথন ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান। তার ইনিংসটি ৯টি চার ও ৭টি ছক্কায় সাজানো।

এদিন কুমিল্লার সাশ্রয়ী বোলার ছিলেন হাসান আলী। ৪ ওভার বল করে ২৩ রান খরচায় এক উইকেট নেন ডানহাতি এই পেসার।

শেয়ার করুন