সাংবাদিকদের ওপর জুলুম চালিয়ে গনতন্ত্র রক্ষা করা যায় না : মাহমুদুর রহমান

সৌদি আরব প্রতিনিধি : দৈনিক আমার দেশ পত্রিকার সম্পাদক মাহমুদুর রহমান বলেছেন- সাংবাদিকদের ওপর জুলুম চালিয়ে গনতন্ত্র রক্ষা করা যায় না, রাষ্ট্রীয় দুর্বৃত্তায়নের কবলে পড়ে সাংবাদিকরা আজ পদে পদে বঞ্চিত হচ্ছে, অহরহ নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন।

স্থানীয় সময় সোমবার সৌদি আরবের জেদ্দার একটি হল রুমে বিএনপি সৌদি আরব শাখার উদ্যোগে আয়োজিত এক সভায় অংশ নিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, যে দেশে সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনা বেশি ঘটে বুঝতে হবে সে দেশে গনতন্ত্রের চর্চা হচ্ছে না। গনতন্ত্রের মুল স্তম্ভ হচ্ছে বাকস্বাধীনতা। বাক স্বাধীনতার ওপর হস্তক্ষেপ করে গনতন্ত্র লালন করা যায় না।

আ’লীগ দেশকে করদ রাজ্যে পরিণত করেছে বলে অভিযোগ করে তিনি আরো বলেন, অবৈধ প্রধানমন্রী শেখ হাসিনা ভাগ্নি টিউলিপ সিদ্দিকি লন্ডনে বাংলাদেশকে অস্বীকার করে দেয়া বক্তবের  প্রতিবাদ করায় আমার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

সভাপতির বক্তব্যে সৌদি আরব বিএনপির সভাপতি ও বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যনির্বহী কমিটির সদস্য আহমদ আলী মুকিব বলেন আওয়ামী লীগ গনতন্ত্রকে নির্বাসিত করে একদলীয় শাসন বাকশাল কায়েমের মাধ্যমে লিপ্ত হয়েছে দুর্নীতি, লুন্ঠন, ধর্ষণ, রাহাজানি, গুম-খুন ও অত্যাচার-নির্যাতন।

দেশের সমগ্র জনসাধারণকে সরকারের ফ্যাসিবাদী আচরণের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়ে তিনি আরো বলেন, অবৈধ সরকার নতজানু পররাষ্ট্রনীতি গ্রহণ করে দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বকে বিসর্জন দিয়ে দেশকে পরিণত করেছে একটি করদরাজ্যে।

বিএনপির চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান দেশনায়ক তারেক রহমানের নেতৃত্বে বাংলাদেশে গনতন্ত্র, সুশাসন, মানবাধিকার, ন্যায় বিচার ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা হবে ইনশাল্লাহ।

দৈনিক আমার দেশ পত্রিকার কথা উল্লেখ করে মাহমুদুর রহমান বলেন, সরকার জোরপূর্বক আমার দেশ বন্ধ করে রেখেছে, এর মাধ্যমে তাদের ফ্যাসিবাদী চরিত্রই ফুটে উঠেছে। বন্ধ করে রাখার আইনগত কোনো ভিত্তি নেই। সরকার সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে বন্ধ করে রেখেছে। দেশে আইনের শাসন ও গণতন্ত্র নেই বলেই সরকার এটা করতে পারছে।

সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সৌদিআরব বিএনপির উপদেষ্টা আব্দুর রহমান ও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নবনির্বাচিত যুক্তরাজ্য যুবদলের সাধারণ সম্পাদক আফজাল হোসেন।

এতে আরো উপস্থিত ছিলেন সৌদি আরব বিএনপির সহ-সভাপতি কেফায়েত উল্লাহ কিসমত, জেদ্দা মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক এম এ আজাদ চয়ন, সদস্য সচিব মোহাম্মদ আলীসহ বিএনপি অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

শেয়ার করুন