ছাএ শিবিরকে জড়িয়ে মিথ্যা বানোয়াট সংবাদ প্রচার: বিয়ানীবাজার উপজেলা শিবিরের নিন্দা

বিয়ানীবাজার পৌরসভার শ্রীধরা গ্রামের নোমান আহমদ এবং ওয়ার্ড কাউন্সিলর এমাদ আহমদের হাতাহাতির ঘটনায় শিবিরকে জড়িয়ে ‘বিয়ানীবাজার বার্তা’সহ একাধিক অনলাইন পত্রিকায় মিথ্যা ও বানোয়াট সংবাদ প্রকাশ করায় এর নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিয়ানীবাজার উপজেলা ছাত্র শিবিরের নেতৃবৃন্দ।

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির বিয়ানীবাজার উপজেলা দক্ষিনের সভাপতি মুহিবুর রহমান পাবেল ও সেক্রেটারি সামছুল হুদা সংগঠনের পক্ষে এ নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

প্রতিবাদ বার্তায় নেতৃবৃন্দ বলেন, রবিবার বিকালে পিএইচজি উচ্চ বিদ্যালয় কতৃপক্ষের সাথে শ্রীধরা গ্রামবাসীর বৈঠক শেষে কথার কাটাকাটির এক পর্যায়ে কাউন্সিলর এমাদ এবং নোমানআহমদের হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। তাৎক্ষনিক ভাবে ঘটে যাওয়া এই ঘটনার সময় এলাকার লোকজন উপস্থিত ছিলেন। এখানে শিবিরের কোন নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন না। অথচ বিয়ানীবাজার থেকে পরিচালিত ‘বিয়ানীবাজার বার্তা’ সহ একাধিক অনলাইন পত্রিকায় এই ঘটনার সাথে ছাত্রশিবিরকে জড়িয়ে মিথ্যা তথ্য দিয়ে সংবাদ প্রকাশ করে অপসাংবাদিকতার নিকৃষ্ট নজির স্থাপন করেছে।

নেতৃবৃন্দ বলেন, প্রকৃত ঘটনা হলো গ্রামের রাস্তা অবৈধভাবে দখল করে বাড়ি নির্মাণ কাজ শুরু করেন নোমান কিন্তু এতে বাধা দেন কাউন্সিলর এমাদ আহমদ। পরে পৌরসভার মেয়র আব্দুস শুক্কুরসহ স্থানীয়দের বিষয়টি হস্তক্ষেপ করে রাস্তা থেকে অবৈধ দখল উচ্ছেদ করে দেন। এই ঘটনার কারনেই মূলত ক্ষিপ্ত হয়ে নোমান আহমদ এবং কাউন্সিলর এমাদ আহমদের মনমালিন্য দেখা দেয় আর এর জের ধরেই হাতাহাতির ঘটনায় ঘটে। কিন্ত সমাজিক এই ঘটনায় রাজনৈতিক দলকে জড়িয়ে প্রতিবেদন করে পত্রিকার বস্তুনিষ্ঠতাকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে।

নেতৃবৃন্দ ভবিষ্যতে এমন বানোয়াট অপপ্রচার থেকে বিরত থাকতে সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদক ও কর্তৃপক্ষের প্রতি আহবান জানিয়ে আশা প্রকাশ করেন যে, তারা অত্র প্রতিবাদটি যথাস্থানে ছাপিয়ে সৃষ্ট বিভ্রান্তি নিরসন করবেন। -বিজ্ঞপ্তি

বিজ্ঞপ্তি প্রেরক

……………..

সভাপতি

মুনিবুর রহমান পাবেল,

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র শিবির বিয়ানীবাজার উপজেলা।

মোবাঃ০১৮২৭২৬৫৪৪৮
শেয়ার করুন