স্যাটেলাইটে ‘দুর্নীতি’ কত : মওদুদ

বাংলাদেশের প্রথম স্যাটেলাইট বঙ্গবন্ধু-১ উৎক্ষেপণে কত টাকা ‘দুর্নীতি’ আর ‘অপচয়’ হয়েছে তা জানতে চেয়েছেন মওমুদ আহমদ।

যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা থেকে স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের দুই দিন পর রাজধানীতে এক আলোচনায় বিএনপির বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য এই প্রশ্ন রাখলেন।

রবিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখছিলেন মওদুদ। স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবুর মুক্তির দাবিতে এ প্রতিবাদ সভার আয়োজন করে ‘শফিউল বারী বাবু মুক্তি পরিষদ’।

বাংলাদেশ সময় শুক্রবার দিবাগত রাত দুইটা ১৪ মিনিটে মহাকাশের পথে যাত্রা শুরু করে বঙ্গবন্ধু-১। দেশের প্রথম স্যাটেলাইটটি উৎক্ষেপণের পর দেশবাসীর মধ্যে আনন্দের জোয়ার বইলেও বিএনপির মধ্যে এ নিয়ে কোনো উচ্ছ্বাস নেই।

আগের দিন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আগে স্যাটেলাইটটি পৃথিবী ঘুরুক, তারপর এ নিয়ে তিনি প্রতিক্রিয়া জানাবেন।

পরদিন মওদুদ বলেন, ‘মহাকাশে স্যাটেলাইট পাঠানো ভালো কথা। এটা আমাদের জন্য গৌরবের। কিন্তু আমরা জানতে চাই এই প্রকল্পে কত অর্থ অপচয় হয়েছে এবং কত দুর্নীতি হয়েছে। এটা জানার অধিকার জনগণের আছে।’

‘সরকারকে জানাতে হবে কত টাকায় চুক্তি হয়েছিল, কাদের সঙ্গে চুক্তি হয়েছিল। টাকা কীভাবে খরচ হয়েছে তার মনিটরিং করা হয়েছিল কি না তাও জানাতে হবে।’

বিএনপি নেতার মতে, বর্তমান সরকার মুখে আইনের শাসনের কথা বলে, কিন্তু বিশ্বাস করে না। মুখে গণতন্ত্রের কথা বলে কিন্তু নীল নকশার নির্বাচন করতে চায়।

খুলনা সিটি নির্বাচনে বিএনপির পক্ষে গণজোয়ারের সৃষ্টি হয়েছে দাবি করে মওদুদ বলেন, সেখানে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে বিএনপির প্রার্থী বিপুল ভোটে জিতবেন।

যদি খুলনায় কোন রকম ‘অনিয়ম’, ‘ভোট ডাকাতি’ বা ‘কারচুপি’ করে বিএনপিকে হারানো হয় তাহলে বিএনপি তীব্র আন্দোলন করবে বলেও জানান মওদুদ।
মওদুদ আহমেদ বলেন, এখন প্রতিবাদ ও প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে, গাজীপুরের মতো গণজোয়ার আগামী নির্বাচনে সারাদেশে সৃষ্টি হবে। সেই নির্বাচনে দেশের মানুষের আশা পূর্ণ হবে, আমরা মুক্ত খালেদা জিয়াকে নিয়েই নির্বাচন করে বিজয়ী হব।

খুলনায় বিএনপির পক্ষে জোয়ার দেখে সাদা পোশাকে লোকদের তুলে নেয়ার অভিযোগও করেন মওদুদ। বলেন, ‘তারা কেন্দ্র দখল করবে, ভুয়া ভোটে ব্যালট বাক্স ভরে ভোট ডাকাতি করবে। আর অন্য দিকে বিএনপির নেতাকর্মীদের নানাভাবে ভয়ভীতি দেখিয়ে এলাকা ছাড়া করছে। তিনদিন থেকে তারা বাড়িতে থাকতে পারছে না।’

আয়োজক সংগঠনের আহ্বায়ক ফয়েজ উল্লাহর সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু, প্রচার সম্পাদক শহিদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু প্রমুখ।

শেয়ার করুন