লুঝনিকিতে হবে বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ও ফাইনাল ম্যাচ

বিশ্বকাপ সামনে রেখে সেজে উঠেছে রাশিয়া। দারুণভাবে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে স্টেডিয়ামগুলো। রাশিয়ার মোট ১২টি ভেন্যুতে এবার অনুষ্ঠিত হবে ফিফা বিশ্বকাপের ২১তম আসর। টুর্নামেন্টে মোট অনুষ্ঠিত হবে ৬৫টি ম্যাচ। এর মধ্যে রাশিয়ার রাজধানী মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে উদ্বোধনী ও ফাইনাল ম্যাচ সহ অনুষ্ঠিত হবে সাতটি ম্যাচ। আসুন আজ এই ভেন্যু সম্পর্কে কিছু তথ্য জেনে নিই।

লুঝনিকি স্টেডিয়াম রাশিয়ার সবচেয়ে বড় স্টেডিয়াম। আর ইউরোপের অন্যতম সেরা স্টেডিয়াম। ১৯৫৬ সালের ৩১ জুলাই এই ভেন্যুটি চালু হয়। বিশ্বকাপ উপলক্ষ্যে এই ভেন্যুতে চার বছর ধরে সংস্কার কাজ করা করা হয়েছে। নতুন রুপে সাজিয়ে তোলা হয়েছে স্টেডিয়ামে। দর্শক ধারণক্ষমতা ৭৮ হাজার থেকে বাড়িয়ে ৮১ হাজার করা হয়েছে।
১৯৫০ ও ১৯৬০ এর দশকে যখন এই স্টেডিয়ামকে লেনিন সেন্ট্রাল স্টেডিয়াম বলা হতো তখন এখানে এক লক্ষ দর্শক বসে সোভিয়েত ইউনিয়নের ম্যাচ উপভোগ করতো। লুঝনিকি স্টেডিয়ামের পাশ দিয়ে বয়ে গেছে মস্কভা নদী। এই জায়গাটি এখন বিনোদনের অন্যতম একটি কেন্দ্রে পরিণত হয়েছে।

১৯৮০ সালের সামার অলিম্পিকে প্রধান ভেন্যু ছিল লুঝনিকি। এই ভেন্যুতে উদ্বোধনী ও সমাপনী অনুষ্ঠান সহ বেশ কিছু প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছিল। ১৯৯৯ সালে এখানে উয়েফা কাপ ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয়েছিল। ২০০৮ সালে অনুষ্ঠিত হয়েছিল উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনাল। ২০১৩ সালে এখানে অনুষ্ঠিত হয় অ্যাথলেটিক্সের ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপ।

এবারের বিশ্বকাপে এখানে উদ্বোধনী ম্যাচে স্বাগতিক রাশিয়ার মুখোমুখি হবে সৌদি আরব। গ্রুপ ‘এফ’ এর জার্মানি ও মেক্সিকোর মধ্যকার ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে এখানে। গ্রুপ ‘বি’র ম্যাচে এখানে মুখোমুখি হবে পর্তুগাল ও মরক্কো। গ্রুপ ‘সি’র ম্যাচে এখানে মুখোমুখি হবে ডেনমার্ক ও ফ্রান্স। এরপর এখানে দ্বিতীয় রাউন্ডের একটি ম্যাচ, সেমিফাইনালের একটি ম্যাচ ও ফাইনাল ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে।

শেয়ার করুন