বেগম জিয়ার জামিন আদেশ স্থগিত

কুমিল্লায় নাশকতার যে দুই মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে হাইকোর্ট জামিন দিয়েছিল, সেই আদেশ স্থগিত করেছে চেম্বার জজ আদালত।

মঙ্গলবার হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনের শুনানি শেষে এই আদেশ দেয়া হয়।

চেম্বার জজ আদালতের বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী এই আদেশের বিরুদ্ধে সিদ্ধান্ত নিতে রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনটি আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে পাঠিয়ে দিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার এর ওপর শুনানি করবে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনসহ পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চ।

গত ১৬ মে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় খালেদা জিয়ার জামিনের বাধা দূর হয় আপিল বিভাগের আদেশে। তবে বিএনপি নেত্রী মুক্তি পাননি। কারণ আরও অন্তত পাঁচটি মামলায় তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা আছে।

এর মধ্যে কুমিল্লায় বাসে পেট্রল বোমা হামলা চালিয়ে আট জনকে হত্যা এবং পুলিশের ভ্যানে হামলা মামলায় ২৮ মে খালেদা জিয়াকে জামিন দেয় একটি হাইকোর্ট বেঞ্চ।

২০১৫ সালের শুরুতে সরকার পতনের দাবিতে বিএনপির আন্দোলন চলাকালে কুমিল্লায় এসব নাশকতার ঘটনা ঘটে।

২০১৭ সালের শেষের দিকে এসব মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হলেও খালেদা জিয়া কারাগারে যাওয়ার পর তাকে কুমিল্লার একটি মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

সোমবার দুই মামলায় খালেদা জিয়াকে হাইকোর্ট জামিন দেয়ার পরই আদেশের বিরুদ্ধে চেম্বার জজ আদালতে যায় রাষ্ট্রক্ষ। বিচারিক আদালতে মামলা চলাকালে হাইকোর্টের জামিনের আদেশ বিচারের জন্য শুভ হয় দাবি করেন রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ কর্মকর্তা মাহবুবে আলম।

মঙ্গলবার এই আবেদনের ওপর শুনানি হয়। বেলা সোয়া তিনটা থেকে মিনিট বিশেক কথা বলেন দুই পক্ষের আইনজীবী।

জামিনের বিরোধিতা করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। আর আসামি খালেদা জিয়ার পক্ষে কথা বলেন খন্দকার মাহবুব হোসেন এবং এ জে মোহাম্মদ আলী।

পরে হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত করে রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনটি আপিলের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে পাঠান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী।

এই মামলা দুটি ছাড়াও আরও তিনটি মামলায় হাইকোর্টে জামিন আবেদন করেছেন খালেদা জিয়া। এর মধ্যে মুক্তিযুদ্ধে শহীদের সংখ্যা নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের অভিযোগে নড়াইলে করা মামলায় জামিন আবেদন আগের দিনই উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ হয়েছে।

এ বিষয়ে নড়াইল আদালতে আবেদন করতে এবং সেখানে জামিন না পেলে হাইকোর্টে আসনে বলা হয়েছে।

আর ১৫ আগস্ট ভুয়া জন্মদিন পালন এবং চিহ্নিত স্বাধীনতাবিরোধীদের মন্ত্রিত্ব দিয়ে মুক্তিযুদ্ধকে অপমানের অভিযোগে করা মানহানির মামলাতেও জামিন চেয়ে খালেদা জিয়ার পক্ষে শুনানি শেষ হয়েছে। এই দুই মামলাতেও হাইকোর্ট আদেশ দেবে বৃহস্পতিবার।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় পাঁচ বছরের কারাদণ্ড হওয়ার পর গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে খালেদা জিয়া ঢাকার পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে আছেন।

শেয়ার করুন