গ্যাস সঞ্চালন চার্জ বাড়ানোর সুপারিশ

গ্যাস সঞ্চালন চার্জ বাড়ানোর সুপারিশ করেছে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি) গঠিত কারিগরি মূল্যায়ন কমিটি।

গ্যাস ট্রান্সমিশন কোম্পানি লিমিটেডের (জিটিসিএল) প্রতি ঘনমিটারে বর্তমানে সঞ্চালন চার্জ রয়েছে দশমিক ২৬৫৪ টাকা। বিইআরসি কারিগরি মূল্যায়ন কমিটি দশমিক ৩৬৮১ টাকা নির্ধারণের সুপারিশ করেছে।

সোমবার টিসিবি অডিটরিয়ামে দাম বৃদ্ধির প্রস্তাবের ওপর গণশুনানিতে এ মত দেয় কারিগরি কমিটি।

গত ১৯ মার্চ জিটিসিএল দশমিক ৫৫৫৯ টাকা সঞ্চালন ব্যয় নির্ধারণের প্রস্তাব কমিশনে দাখিল করে।

শুনানিতে অংশ নেন কমিশনের চেয়ারম্যান মনোয়ার ইসলাম, সদস্য আব্দুল আজিজ খান, মিজানুর রহমান, রহমান মুর্শেদ ও মাহমুদ উল হক ভুঁইয়া।

শুনানিতে কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) জ্বালানি বিষয়ক উপদেষ্টা অধ্যাপক শামসুল আলম, জিটিসিএল, বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডসহ (পিডিবি) বিভিন্ন কোম্পানির কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন।

সার উৎপাদনে সর্বোচ্চ ৩৭২ শতাংশ ও বিদ্যুতে ২০৬ শতাংশ দাম বাড়ানোর প্রস্তাব করেছে বিতরণ কোম্পানিগুলো। আমদানি করা উচ্চমূল্যের এলএনজির কারণে বেড়ে যাচ্ছে গ্যাসের দাম। তার প্রভাবেই কোম্পানিগুলো আকাশচুম্বী দরপ্রস্তাব করেছে বলে জানা গেছে।

১২ জুন অনুষ্ঠিত হবে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির গ্রাহক পর্যায়ে দাম বাড়ানোর বিষয়ে গণশুনানি। বৃহৎ এ বিতরণ কোম্পানিটি সার উৎপাদনে সর্বোচ্চ ৩৭২ শতাংশ দাম বাড়ানোর প্রস্তাব করেছে। বর্তমানে সার উৎপাদনে প্রতি ঘনমিটার গ্যাসের দাম রয়েছে ২ দশমিক ৭১ টাকা। তিতাস গ্যাস ১২ দশমিক ৮০ টাকা করার প্রস্তাব দিয়েছে।

আবাসিকে গ্যাসের দাম বাড়ানোর কোনো প্রস্তাব দেয়নি তিতাস গ্যাস। তিতাস গ্যাসের মতো একই হারে দাম বাড়ানোর প্রস্তাব দিয়েছে অন্য চারটি বিতরণ কোম্পানিও।

আগামী ১৯ জুন কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড, ২০ জুন পশ্চিমাঞ্চল গ্যাস কোম্পানি লিমিটেড, সর্বশেষ ২১ জুন জালালাবাদ গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন সিস্টেম লিমিটেড ও সুন্দরবন গ্যাস কোম্পানি লিমিটেডের দাম বাড়ানোর প্রস্তাবের ওপর গণশুনানি গ্রহণ করবে বিইআরসি।

শেয়ার করুন