হলি আর্টিজান মামলা: ৭ আসামির মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে আদালত

হলি আর্টিজানে হামলা মামলার রায়ে ৭ আসামিকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে আদালত। ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ মজিবুর রহমান এ রায় দেন।

বুধবার (২৭ নভেম্বর) দুপুর ১২টার দিকে রায় ঘোষণা শুরু হয়। এর আগে এ মামলার ৮ আসামিকে আদালতে তোলা হয়।

মৃত্যুদণ্ড পাওয়া আসামিরা হলো- হামলার মূল সমন্বয়ক তামিম চৌধুরীর সহযোগী আসলাম হোসেন ওরফে রাশেদ ওরফে আবু জাররা ওরফে র‍্যাশ, ঘটনায় অস্ত্র ও বিস্ফোরক সরবরাহকারী নব্য জেএমবি নেতা হাদিসুর রহমান সাগর, জঙ্গি রাকিবুল হাসান রিগ্যান, জাহাঙ্গীর আলম ওরফে রাজীব ওরফে রাজীব গান্ধী, হামলার অন্যতম পরিকল্পনাকারী আব্দুস সবুর খান (হাসান) ওরফে সোহেল মাহফুজ, শরিফুল ইসলাম ও মামুনুর রশিদ।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তদের প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানার আদেশও দিয়েছেন আদালত।

খালাস দেওয়া হয়েছে মিজানুর রহমান ওরফে বড় মিজান নামে এক আসামিকে।

রায় শোনার পর আদালত কক্ষের ভেতরে “আল্লাহু আকবর” স্লোগান দিতে থাকে আসামিরা। পরে তাদেরকে আদালত কক্ষ থেকে বের করে নিয়ে যায় পুলিশ।

এর আগে এদিন সকালে কেরাণীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে আসামিদের আদালতে আনা হয়। বেলা ১২টায় বিচারক রায় পড়া শুরু করেন। এসময় সব আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলো।

গত ১৭ নভেম্বর রাষ্ট্রপক্ষ ও আসামি পক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষে বিচারক রায় ঘোষণার তারিখ নির্ধারণ করেন। মামলায় ১১৩ সাক্ষীর সাক্ষ্য নিয়েছে ট্রাইব্যুনাল।

২০১৬ সালের ১ জুলাই রাজধানীর গুলশান এলাকার কূটনীতিকপাড়ায় হলি আর্টিজান বেকারিতে নজিরবিহীন জঙ্গি হামলা চালিয়ে ২২ জনকে হত্যা করে জঙ্গিরা

শেয়ার করুন